কালবৈশাখীর আগমনে

আজ আনন্দে ভরপুর আমার এই মন,তুমি বুঝবে না কি এর কারণ ।আজ আমার প্রকৃতি আমার ঘরে ঢুকে গেছে;জানো- এসেছে খোলা জানালা দিয়ে,আর ভিজিয়ে দিয়ে স্নিগ্ধতা রেখে গেছে-আমার নরম বিছানাতে।আজ প্রকৃতি আমার প্রেমে পড়েছে,তুমি বুঝবে না আমার মনে কেন এত আনন্দ ঝরছে,প্রচুর গরমে বাতানুকুল চালিয়ে ঘুমন্ত ছিলআমার শরীর-প্রকৃতি বাতানুকূলের ছিদ্র দিয়ে এসে,দিয়েছে দোলা, জাগিয়েছে শিহরণ-আমার মনে, … পড়তে থাকুন কালবৈশাখীর আগমনে

Advertisements

Fear

This is a rhyme for kid regarding fear felt by a kid when his / her parents are busy in working outside. Fear fear, My dear, Go away ! My parents are far away ! I am alone, At my home. Courage , be with me. We both will see, How fear touch me Courage, … পড়তে থাকুন Fear

আমি

আমি কাঁদি গভীর রাত্রে নিঃশব্দে, আমি হাসি দিবালোকে প্রকাশ্যে। আমি অনুভব করি সংসারের জটিলতা , আমি বুঝতে পারি ভালোবাসার অভাবটা। আমি দেখেছি ভালোবাসার ভেদাভেদ , আমি দেখেছি সম্পর্কের বিচ্ছেদ , দেখেছি বছরের ওই একটি সময়ে - পুজোর ওই মাত্র চারটি দিনে , সক্কলে আত্মীয়স্বজনকে নিয়ে থাকে কত্তো খুশি মনে। আর পুজোর পঞ্চম দিনে সক্কলে মজে … পড়তে থাকুন আমি

কালবৈশাখীর আগমনে

Nature also may fall in love with someone… This poem describes about that love story of nature

With Nature-tanusrirchokhe

picture of thunderstorm from window এর ছবির ফলাফলআজ আনন্দে ভরপুর আমার এই মন,

তুমি বুঝবে না কি এর কারণ ।

আজ আমার প্রকৃতি আমার ঘরে ঢুকে গেছে;

জানো- এসেছে খোলা জানালা দিয়ে,

আর ভিজিয়ে দিয়ে স্নিগ্ধতা রেখে গেছে-

আমার নরম বিছানাতে।

আজ প্রকৃতি আমার প্রেমে পড়েছে,

তুমি বুঝবে না আমার মনে কেন এত আনন্দ ঝরছে,

প্রচুর গরমে বাতানুকুল চালিয়ে ঘুমন্ত ছিল

আমার শরীর-প্রকৃতি বাতানুকূলের ছিদ্র দিয়ে এসে,

দিয়েছে দোলা, জাগিয়েছে শিহরণ-

আমার মনে, আমার ক্লান্ত শরীরে।

সাথে সাথে খুলে গেল জানালা,

আজ আমি প্রকৃতির সাথে একদম একলা,

কিন্ত মনে হচ্ছে পুরো ভুবন আমার সাথে।

মাঝে মাঝে ছুঁয়ে যাচ্ছে বৃষ্টি আমাকে।

কখনো বা ঝড়ো বাতাস আমার সাথে খেলছে ভালো,

আমার মাথার চুলগুলোকে করছে শুধু এলোমেলো।

একটা অসাধারন অনুভূতি জাগছে আমার মনে,

মনে হচ্ছে সাময়িক এর জন্য গোটা ভুবন আমার সাথে।

আজ জ্বলবে না কোনো কৃত্রিম আলো,

বিদায় জানায় কৃত্রিম হাওয়া কেও।

আজ প্রকৃতির চমকানো আলোতেই,ঘর হবে আলো;

সেই আলোয় তোমায় আমায় লাগবে বেশ ভালো।

চল,জ্বালিয়ে দিই মাটির প্রদীপ…

View original post 102 more words

দূর্গা মা

মাগো চারটে দিনে কি হবে বল, তুই আমার সাথে চল। গোটা গ্রাম ঘুরলে পরে, প্রাণ যাবে শিউরে। তুই যখন আসিস মা , চারটে দিনে কিছুই দেখতে পাস্ না। ওই চারটে দিনে সবাই ভদ্র সেজে থাকে, হাসি,খুশি ,খাওয়া দাওয়া তে শুধুই মাতে। সব্বাইকে আপন করে নিজেকে ব্যস্ত রাখে। জানিস মা,তুই যাওয়ার পর- আপন কেমন হয়ে যায় … পড়তে থাকুন দূর্গা মা

আমার তুমি যখন অন্য দেশে

আমার তুমি যখন আমায় ছেড়ে বহু দূরে ভিন দেশে, তোমার আমাকে তোমার কাছে পৌঁছতে কত্তো কাঠ খড় হবে পোড়াতে, লাগবে পাসপোর্ট,ভিসা আরো কত্তো কি ? তোমার সরল ভালোবাসা এতো কিছু বোঝে কি ? তোমার সেই ফেলে আসা ধুলোমাখা শহরটা - একরাশ বেদনা নিয়ে জেগে -সেই কলকাতা, যাকে তুমি খুব খুব ভালোবাসতে, যার জন্য অন্য শহরে … পড়তে থাকুন আমার তুমি যখন অন্য দেশে

অনুভূতি

অনুভূতির মাত্রাগুলোর গভীরতা, কখনো কমে আবার কখনো বাড়তে থাকে, ঠিক যেমন হৃৎস্পন্দনের কম্পনতা , থাকতে পারে না সরলরেখাতে। অনুভূতি কেমন যেন খামখেয়ালি, শুধুই করতে থাকে হেয়ালি। সম্পর্কগুলো জেগে ওঠে, ভালো অনুভূতির স্পর্শে। সম্পর্কগুলো ম্লান হয়ে যায়, খারাপ অনুভূতির ছোঁয়ায়। ভালোবাসা কেমন যেন ঘ্যানঘ্যানে, যদি সব ই ভাসে একই ছন্দে একই স্রোতে, সবার জীবনেই সময়ের সাথে সাথে, সমস্ত … পড়তে থাকুন অনুভূতি

একা

যখন মাতৃগর্ভ থেকে বেরিয়ে এসেছিলাম -একদম একা। খুব চিৎকার করে কেঁদেছিলাম -কিন্তু একা। বাবা,মা,দাদা,ভাই,বোন কিন্তু বেশ হাসিখুশিতে ছিল মেতে, আমিও ধীরে ধীরে ব্যস্ত হয়ে পড়লাম আনন্দেতে। ব্যাস ,যেই একটু বড় হয়ে গেলাম, ওমনি স্কুল,প্রাইভেট এর খাঁচায় বন্দি হলাম। কিন্তু তবুও আপনজনের ভালোবাসা ছিল, জ্বর জ্বালাতে পাশে থাকার অনেকে ছিল। এমনিভাবেই পার করলাম কলেজের ও চারটি … পড়তে থাকুন একা

লিখতে পারি

লিখতে পারি তোমার সর্বস্ব নিয়ে, লিখতে পারি এক পৃথিবী । লিখতে পারি তোমার সাথে বাস্তবের সামঞ্জস্য রেখে, এক চমকানো কাহিনী । লিখতে পারি পাতার পর পাতা । লিখতে পারি এক কদমে তোমার জীবনকথা । লিখতে পারি শুধু তোমাকে নিয়ে, রাস্তা থেকে শুরু করে শেষ করবো আকাশ দিয়ে। আকাশের যেমন নেই কোনো ইতি, আমার ও লিখার থাকবে নাকো সমাপ্তি। যা … পড়তে থাকুন লিখতে পারি

দুষ্টু মিষ্টি ছোটবেলা

কখনো কি জানালা দিয়ে আকাশ দেখেছেন ? কখনো কি প্রচুর বৃষ্টিতে খোলা আকাশের নিচে দাঁড়িয়ে ভিজেছেন? কখনো নক্ষত্রখচিত আকাশের নিচে দাঁড়িয়ে তারা গুনেছেন ? কখনো কি অমাবস্যার রাতে জোনাকিদের ঝিকিমিকি দেখেছেন ? কখনো কি ভোরবেলার শিশিরভেজা ঘাসে হাত রেখেছেন ? কখনো কি শিউলি গাছের নিচ্ছে শিউলি ফুলদের বিছানা দেখেছেন ? কখনো কি শাল পাতা বা … পড়তে থাকুন দুষ্টু মিষ্টি ছোটবেলা

সম্পর্ক

যতই দিন যায় , সম্পর্কের সুতোগুলো পেঁচিয়ে যায়। প্রাচীন সমাজে নারীদের অবহেলায়, বর্তমান নারীদের এগিয়ে নিয়ে যায়, স্বনির্ভরতার দরজায়। ঘরে ঘরে মেয়েরা চাকুরীরতা, ঘরে বাহিরে মেয়েদের ব্যস্ততা। প্রযুক্তিবিদ্যার উন্নতি, সম্পর্কের বন্ধনের অবনতি। হস্তক্ষেপ যদি হয় মেয়েদের স্বাধীনতায়, সম্পর্কগুলো কেমন যেন গিঁট লেগে যায়। আধুনিক সমাজের নারীরা  বদল দিতে পারে দুনিয়া টা। কয়েকযুগ পরে বদলে যাবে চিত্রটা … পড়তে থাকুন সম্পর্ক

ক্যান্সার

সত্যি কি ভয়ঙ্কর  তুমি ! জীবন নিয়ে ছিনিমিনি ! কখন যে কার ঘাড়ে বসবে কোন যুক্তিতে কাকে চিবোবে- তার নেই কোনো হিসাব। জীবনে নিয়ে এসো শুধু শাপ! ধিক্কার তোমাকে ! ধিক্কার তোমার কাজকে! কোষের পচন ধরাই কী তোমার কাজ? জীবনকে দুর্বিষহ করাই কী তোমার কাজ ? শিশু থেকে বয়স্ক কাওকে বাদ দাও না তুমি, তোমার … পড়তে থাকুন ক্যান্সার

জন্ম -মৃত্যু

জন্ম যেমন নেই মানুষের হাতে, মৃত্যুও ঠিক তেমনি চলে জন্মের সাথে। জন্ম -তুমি যেন জীবনের সূচনা, কিন্তু মৃত্যু -সূচনা না অন্ত ,সবার অজানা। জন্ম মানুষের মনে খুশি আনে, কিন্তু যে জন্মায় ,সে শুধুই কাঁদে। মৃত্যু মানুষকে শুধুই কাঁদায়, কিন্তু যার জীবন হলো অন্ত সেও কাঁদে আর বাকিদের কাঁদায়। শ্বাস যখন মুখ ফিরিয়ে নেয় জীবন থেকে , … পড়তে থাকুন জন্ম -মৃত্যু

বিশ্বাসঘাতক

এক নিমেষে সব মায়া ছেড়ে, তোমার কাছে এসেছিলেম দৌড়ে। কলেজ প্রাঙ্গনে তুমি কতই না কান্ড বাঁধিয়েছিলে, আমার বিমুখ মন তোমার পাগলামোর কাছে বন্দি হয়েছিলে। হোস্টেলের সবচে ভালো বান্ধবীটার সঙ্গ ছেড়ে, তোমার মধ্যে দিয়েছিলাম নিজেকে উৎস্বর্গ করে। তারপর একদিন বিবাহের গন্ডিতে, এক শুভ লগনে আবদ্ধ হয়েছিলাম দুজনে। জানো আজো মনে পড়ে, সেই দিনটা,ঘুরে ফিরে বারে বারে। মনে … পড়তে থাকুন বিশ্বাসঘাতক

প্রকৃতিই আমার ঘর

বলতে পারিস ঘরের আমার কি দরকার ? দুই পাহাড় হবে ঘরের দুই দেওয়াল , আর ওপরের টুকরো টুকরো মেঘ দিয়ে বানাবো ঘরের ছাদ। কিন্তু মেঘ, বৃষ্টি নিয়ে আসিস অঝোরে ঠিক আমার চানের সময়ে , শীতের রাত্রে কাঁপবো যখন ঠনঠন করে, মেঘ তুই আমায় কম্বলের মতো করে দিস ঢাকিয়ে। গরমের তো চিন্তায় আর রইলো না - দুই … পড়তে থাকুন প্রকৃতিই আমার ঘর

দান

যা কিছু আছে তোমার ভাণ্ডারে, দিতে থাকো গরীবদের তরে। যে আনন্দ তোমার বইবে শরীরে- সেই স্নিগ্ধতা সুস্থ রাখবে তোমারে। কি হবে তোমার ভান্ডার ভারী করে , অকারণ চিন্তায় মন বিগড়ে ?   হে জননী,যারে তুমি জন্ম দিয়েছো, তার তরে চিন্তা কেন বয়েছো? তাকে ভাবতে দিও তার জীবন, তুমি যদি দিতে থাকো তোমার ভান্ডারে গচ্ছিত ধন, … পড়তে থাকুন দান

কবিতার শব্দগুলো

গভীর রাত্রের কালো অন্ধকারে, ঠিক বিশ্রাম নেওয়ার আগে বিছানাতে, তোমরা শুধু উঁকিঝুঁকি মারো আমার ঠোঁটের গোড়াতে। অস্থির হয়ে ওঠে আমার মন। বিচলিত হয়ে যাই আমি কিছুক্ষণ। শুধু একটা নয়,হাজার টা কবিতার শব্দগুলো এর চঞ্চলতায় জেগে ওঠে ঘুমিয়ে থাকা পাঁজরাগুলো। চোখ দুটো বিরক্তিতে চেয়ে থাকে, শুধুই আমার মনের দিকে। নীরব আমি,ভালোবাসি কবিতাগুলোকে। তাই উত্তর দিতে পারি … পড়তে থাকুন কবিতার শব্দগুলো

ভালো লাগে

ভালো লাগে নীরবে নিভৃতে, একান্তে তোমার কথা ভাবতে। ভালো লাগে তোমার কথা ভাবতে ভাবতে, খোলা ছাদে দাঁড়িয়ে বৃষ্টিতে ভিজতে। ভালো লাগে নিশীথের নক্ষত্রখচিত আকাশে, পূর্ণিমার আলোকে মধুর বাতাসে, তোমাকে ঘিরে অসংখ্য স্বপ্ন বুনতে। ভালো লাগে তুমি কবে আসছো সেই অপেক্ষায় থেকে, চাতক পাখির মতো মুখ হাঁ করে থাকতে, আর হাঁ করে স্বপ্নে তোমায় ভালোবাসতে।

চলে যাবো

চলে যাবো দূরে বহু দূরে, পাহাড়ের চূড়ায় নির্জনে নিভৃতে।  কিন্তু পাহাড় যদি ফেলে দেয়  নিচের গভীর খাদে ! তবুও চলে যাবো দূরে বহু দূরে, মিশে যাবো বাতাসের সাথে।  কিন্তু বাতাস যদি দেয় উড়িয়ে - আছড়ে ফেলে দেয় মাটিতে ! তবুও চলে যাবো দূরে বহু দূরে,   গা ঢাকা নেবো মেঘেদের মাঝে।  কিন্তু মেঘ ভেঙ্গে যদি বৃষ্টি … পড়তে থাকুন চলে যাবো

%d bloggers like this: